অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধমে ইনকাম

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং!

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধমে ইনকাম।

Internet এ ইনকাম করা নিয়ে একটু হলেও নড়াচড়া করেছেন তারা কোন না কোন একসময় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর নাম শুনে থাকবেন. হয়তো অনেকেই আছে জানেনঅ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ? এটা কিভাবে করতে হয়?  আবার অনেকে আছে আফিলিয়েট মারকেটিং অনেক এক্সপার্ট আমি নিজেও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেছো আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদেরকে আমি জানাব কিভাবে আপনি বাংলাদেশ থেকে কোন ইনভেস্টমেন্ট ছাড়া আপনার ফেসবুক পেজ ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে একটা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারেন আমার কিছু প্রসেস আছে যেগুলো আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব এবং বিস্তারিত আলোচনা করবো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে।

তো এফিলিয়েট মার্কেটিং কি যারা জানেন খুবই ভালো আর যারা জানেন না তাদের জন্য এফিলিয়েট মার্কেটিং হল আপনি কোন একটা কোম্পানির প্রোডাক্ট এন্ড সার্ভিস সেল করে দিবেন এবং বিনিময় সেখান থেকে আপনি একটা কমিশন নিবেন এবং আমার একটি টি-শার্টের কোম্পানি আছে এবং আমি একা আমার এই কোম্পানির মার্কেটিং করছি কিন্তু খুব একটা ভালো আসছে না কারণ আমি অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছাতে পারছি না ।

আপনার হয়তো একটা ইউটিউব চ্যানেল আছে যেখানে অনেক অডিয়েন্স আছে ।আপনি অনেক মানুষের কাছে রিচ করতে পারেন। আমি আমার টি শার্ট টা নিয়ে আপনার কাছে গেলাম এবং আপনাকে বললাম যে আপনি আমার টিশার্ট টা আপনার অডিয়েন্সের কাছে প্রমোট করেন এবং সেখানে সেল করে দেন এবং প্রতি সেলে আমার প্রোডাক্টে যে প্রাইস দেশে প্রাইসের 10 শতাংশ 5 শতাংশ যেকোনো একটা এমন বললাম আমি যে কত পার্সেন্টেজ আপনি কমিশন হিসেবে পাবেন এবং প্রতিটা সেলেই পরিমাণে পার্সেন্টেজ পাবেন ।এই হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কোম্পানি হিসেবে আমার প্রোডাক্ট মার্কেটিং করছে আপনার সাথে আপনি আমার প্রোডাক্টে আমার টি শার্ট এই আপনার অডিয়েন্সের কাছে প্রমাণ করছেন তারা যদি কেনে তাহলে এই প্রাইস থেকে একটা পার্সেন্টেজ আপনি পাচ্ছেন খুবই সিম্পল একটা ব্যাপার এটি হচ্ছে আফিলিয়েট মারকেটিং তো এটাতে কমপ্লিকেটেড কোন কিছুই নেই বাট আপনার মেয়ের কাছে রয়েছে অডিয়েন্স গ্রো করা অর্ডিন্যান্সের কাছে রিচ করানো, পৌঁছানো এই টাই হচ্ছে কঠিন কাজ তাই মারকেটিং বাংলাদেশ অনেকেই অফার করছে আমি যাদের টা ইউজ করছি সেটা হচ্ছে bdshop.com রিভিউ আপনার দেখে থাকবেন। তাদের প্রোডাক্ট এর রিভিউ গুলা আমি করি তো ওখান থেকে আমি একটা অ্যাফিলিয়েট ফি পাই যখন আমার লিংকে ক্লিক করে কেউ কোন প্রোডাক্ট কিনে ।তো bdshop এ অ্যাফিলিয়েট সিস্টেম টা আছে সেটা নিয়ে আপনাদের সাথে একটু কথা বলবো তাহলে আপনারাই বুঝে যাবেন, যে অ্যাপলেট মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে এবং আপনি কিভাবে করতে পারে সে জিনিসটা কি আমি আপনাদেরকে বিশেষভাবে রাইফেলের প্যানেল দেখাবো এবং সেখান থেকে কিভাবে আমি লিংক গুলো জানেন করে কিভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হয়। বিদেশে যে ইউটিউব চ্যানেল গুলা আছে অনান্য দেশের যেখানে অনতত অ্যামাজনের সার্ভিস আছে সেগুলো কি যদি আপনারা দেখেন তাহলে খেয়াল করবেন যে ওদের ইনকামের সোর্স অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং অথবা স্পনসর্শিপ এন্ড হচ্ছে মার্চ মার্চের কি তাদের প্রোডাক্ট গুলো সেল করে ইউটিউব।

গুগল এডসেন্স একদম শুরুতে আসে গুগল এডসেন্সের ইনকাম অনেক কম ।এটা যারা ইউটিউবিং করে তারা হয়তো জানেন যারা করেন তারা ভাবেন যে ইউটিউবে গুগল এডসেন্স মিলিয়ন বিলিয়ন টাকা দিয়ে ইনকাম সোর্স ট্রাক গুগল এডসেন্স থেকে বের করে এনে স্পনসর্শিপ কিংবা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর দিকে ফোকাস করা তাহলে কি হবে আমাদের কনটেন্টের কোয়ালিটিও বেটার হবে কারণ জনকণ্ঠ কিন্তু স্পনসর্শিপ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হবেনা । যখন আমাদের স্পন্সরশীপের জন্য তারা থাকবে যখন আমরা চাইব যে আমরা স্পনসর্শিপ নেব তখন কিন্তু কোয়ালিটি ইমপ্রুভ করার পেছনে অন্য সময় বেশি দেব এবং স্পন্সর ভাল পাব।অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিছুক্ষণ আগে বলছিলাম আমি বিডি শপ একটা করি আপনার এরকম না যে বিডি শপ এর তাই করতে হবে আপনারা যে কোন সাইটের করতে পারেন যে অফার করে তাই করতে পারেন প্রয়োজনে যোগাযোগ শুরু করতে চাই তখন একটু অনুসন্ধান করেছিলাম বাংলাদেশের জনপ্রিয় ই কমার্স সাইট গুলো আছে সেগুলো নিয়ে, যেমন প্রথমে ছিল আমার টার্গেট স্টার daraz.com আমি জানতাম যে তারা যে অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম আছে সেখানে আমি হোম পেজে দেখতে পাচ্ছি বিকাম অ্যান আফিলিয়েট অপশন আছে দারাজের ।

বেশিরভাগ ই-কমার্স সাইট যারা আফিলিয়েশন অফার করে তাদের সবার হোম পেইজে কোনো না কোনো লিংক আপনারা পেয়ে যাবেন বিকাম অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এরকম কিছু একটা আছে আমি যখন সাইন আপ করলাম চান করার পরে তারা আমাকে একটি মেইল দিলেন কনফার্ম করার জন্য কনফার্ম করার পরে তারা কনগ্রাচুলেশন্স ইউর e-mail হাস বিন সাকসেসফুলি কনফার্ম এরকম একটা রিপ্লাই দিলো এবং তারা বলল যে আমার অ্যাকাউন্টে আপলোড করবে তিন-চার মাসের মতো হয়ে গেছে আমি এপ্লাই করেছি কিন্তু এখনো পর্যন্ত তাদের কাছ থেকে কোনো ইমেইল ব্যাক আমি পাইনি সো আমার মনে হয় দারাজ এখনো পর্যন্ত অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম টা নিয়ে খুব একটা সিরিয়াস না সে কারণে দারাজে আর হলো না নেক্সট টাইম ট্রাই করেছি সেটা হচ্ছে বাগডুম ডটকম ওদেরও এফিলিয়েট প্রোগ্রাম আছে সবার নিচে দেখতে পাচ্ছেন হোমপেজের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম লেখা আছে আমি সাইন আপ করলাম সাইন আপ করার পরে দেখলাম তারা এপ্রুভ করেছে বা ডেভলপ করার পরে একাউন্টে যখন আমি উইথড্র অপশনে গেলাম পেমেন্ট মেথড এর মধ্যে আমি শুধু দেখতে পেলাম সে মানিবুকার্স নামে একটা অপশন সেট করা আছে এটা খুব সম্ভবত এখন স্ক্রিল হয়ে গিয়েছে এটা ছাড়া ওদের ুদ্র করার কোন অপশন নেই সেটাও আমার কাছে মানে কতটা কার্যকর মনে হয়না বাগডুম ডটকম মেবি তারা ভবিষ্যতে ঠিক করে ফেলবে আপনার একটু চেক করবেন।

দিন পরপর বাগডুম ডটকম হল না তখন আমি চেষ্টা করলাম পিকা পিকা পথে দেখলাম কোনো প্রোগ্রাম নেই শেষে প্রিয়শপের ট্রাই করলাম নেই এ ছাড়াও বেশকিছু ই-কমার্স সাইট আছে বাংলাদেশে যেগুলোতে আমি একটা একটা করে ট্রাই করি কিন্তু কোনোটাতে এফিলিয়েট প্রোগ্রাম পেলাম না মনে হচ্ছে bdshop.com ।তিনটা সাইটে এখন পর্যন্ত পেয়েছি দারাজ বাগডুম বিডিসপ দারাজ এবং বাগডুম কোনটাই আমার পছন্দ হয়নি আর জেহেতু আমি বিডিসপের সাথে থেকে কাজ করি তাই bdshop চয়েজ। আপনারা চাইলে বিশ্বাস হবে করতে পারেন আর যদি মনে করেন যে দারাজ কিংবা মাধ্যমে করবেন সেটাও করতে পারেন এবং bdshop24 দারাজ তিনটা সাইটে আপনার ফেসবুকের গ্রুপ আছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারদের জন্য আপনারা যে বেশী গ্রুপ গুলোতে জয়েন করে আপনাদের যদি কোন কোশ্চেন থাকে কোন কোষে থাকে সেখানে পোস্ট করতে পারেন দারাজের হলে দারাজে অথবা অন্য সাইটে ।bdshop কে নিয়ে আমরা কথা বলবো, যেহেতু আমি আছি এবং আমি এখান থেকে ইমাউন্ট ইনকাম করছি ।bdshop যদি আপনারা হোমপেজে জানতে হলে দেখতে পারেন এখানে অ্যাফিলিয়েট নামের অপশন আছে অ্যাফিলিয়েট এ ক্লিক করলেই এই পেজ ওপেন হবে এবং এই পেজের মধ্যে তারা step-by-step টিউটোরিয়াল দিয়ে করেছে যেখানে আপনারা দেখতে পারবেন কিভাবে সাইন আপ করতে হয় এবং কিভাবে আফিলিয়েট প্রোগ্রামের জয়েন করতে হয় ।অ্যাফিলিয়েটের জয়েন করব কিভাবে আর নয় সেটা আগে কেউ বলেনি যখন আপনার দেওয়া লিংকে আপনি এই সাইট থেকে একটা লিংক জেনারেটর bdshop থেকে আমরা কিছুক্ষণ পরে দেখাবো।

সেই লিংকটা যখন আপনার ভিডিও ডেসক্রিপশনে কিংবা কোন এক জায়গায় আপনার ওয়েবসাইট অথবা ফেসবুক পেজ এর যে কোন জায়গায় আপনি পোস্ট করবেন এবং সেই লিঙ্কে ক্লিক করে যদি কেউ ওই প্রোডাক্টটা কেনে তাহলে আপনি কমিশন পাবেন। শুধু ওই প্রোডাক্টটা না বিভিন্ন সাইটে বিভিন্ন রকমের পলিসি থেকে বিডিসপ হচ্ছে 30 দিন আপনার ওই লিংকে ক্লিক করার পরে কোন ইউজার যদি ওয়েব ব্রাউজার থেকে ওই পিসি থেকে ৩০ দিনের মধ্যে কোন প্রোডাক্ট কেনে বিডি সপ থেকে তাহলে সেটার কমিশন আপনি পাবেন হুইচ স্কুল কুকিজ এর মাধ্যমে 30 দিন পর্যন্ত এই ক্লিক ভেলিট থাকবে এবং এই 30 দিনের মধ্যে সেল হলেই তার মানে এমন না যে আপনি একটা প্রোডাক্টের প্রমোশন করছেন ফর এক্সাম্প্লে আমি কিছুদিন আগে মনের একটা ছোট্ট রিভিউ করেছিলাম।

আমি প্রমোশন করেছি করবই আমি এমনি লিংকে ক্লিক করে এগিয়ে যদি কেউ অন্য প্রোডাক্ট কিনে 30 দিনের মধ্যে তাহলে সেটার কমিশন কিন্তু আমি পাব এখন কমিশনের পরিমাণ টা কত? বিভিন্ন সাইটে বিভিন্ন রকমের সিস্টেমটা হয় ক্রাইটেরিয়া তে হয় কিন্তু বিদেশে বেজে ক্রেডিট এর সাথে খুবই ইন্টারেস্টিং লেগেছে আমার কাছে ৫ টি ধাপ আছে স্টার্টার, সিলভার, গোল্ড, ডায়মন্ড এবং প্লাটিনাম এবং আপনি যখন স্টার্টার হবে এটা এই যে রেঙ্ক গুলো এগুলো সেলের ভিত্তিতে যখন আপনি নতুন শুরু করবেন তখন আপনার স্টার্টার প্যাকেজ টা থাকবে সেখানে আপনি ৩ পার্সেন্ট কমিশন পাবেন পার্সলে যখন সিলভার হয়ে যাবেন তখন ৪ শতাংশ এর পরে গোল্ডেন প্লাটিনাম রেস্পেক্টিভলি ৫,৬ এবং ৭ পার্সেন্ট পর্যন্ত আপনি কমিশন পাবেন এখান থেকে । সবগুলো এগুলো ডিপেন্ড করে আপনার কত পরিমাণে সেল হচ্ছে যেমন এইখানে এখন রেঙ্ক এর জন্য কত সেলে লাগে সেটা আমরা দেখতে পাচ্ছি । ০-১৯ সেল যখন আপনার হবে এটা লাইফ টাইম এর জন্য আপনার কমিশন 3 শতাংশ হয়ে যাবে স্ট্যাটাস এবং 20 থেকে ৪৯ টা সেল যখন আপনার হবে তখন আপনিও কমিশন পাবেন ৪ শতাংশ এবং এটা হচ্ছে সিলভার এবং এগুলো কিন্তু মাসিক সেল নাম্বার অফ অর্ডার.

মাস ওকে এটার একটা লিমিট আছে তিন মাস পর্যন্ত আপনার একটা বেলেট থাকবে তিন মাস পরে যদি আপনার সেলফ হয়ে যায় তখন আপনি আবার ডাটা প্যাকেজের চলে আসবেন সেই ভাবে ৫০ থেকে ৯৯ তা হলে আপনি ৫ শতাংশ থেকে ১৯৯ হলে ৬ শতাংশ এবং ২০০ এবং হলে আপনি ৭ শতাংশ মানে প্লাটিনাম মেম্বার এবং তিন মাসের মধ্যে তিন মাস পর্যন্ত আপনার এইটা আপনার এই রেঙ্কটা ভ্যালিড থাকবে তিন মাসের মধ্যে যদি আপনার থেকে কমে যায় তাহলে নিচের রেঙ্কে চলে আসবেন সেই হচ্ছে মোটামুটি তাদের ব্যাংকিং সিস্টেম টা ।

কমিশন সেখানে পেয়ে যাচ্ছেন হিসেবে জয়েন করতে পারেন।

 

Leave a Comment